কুমিল্লা রোবটিক্স ও প্রোগ্রামিং ক্লাব

কেন রোবটিক্স এবং প্রোগ্রামিং শিখবেন?


কেন রোবটিক্স এবং প্রোগ্রামিং শিখবেন?

চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের এ যুগে আমাদের ছেলেমেয়েদের রোবটিক্স, আইওটি, প্রোগ্রামিং প্রভৃতি বিষয়ে বিশেষ দক্ষতা অর্জন করা
প্রয়োজন। বিশেষ করে স্কুল পর্যায়ে প্রোগ্রামিং, রোবটিক্স এ হাতেখড়ি দেয়া হলে তা শিশুদের চিন্তাশক্তি বিকাশে বিশেষ ভূমিকা
রাখবে- বিশেষ করে তাদের যৌক্তিক মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে। চীন, কোরিয়া, সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়াসহ বিশ্বের বিভিন্ন
দেশে স্কুল পর্যায়ে রোবটিক্স ক্লাব এর মাধ্যমে বাচ্চাদের হাতে-কলমে রোবট বানানোর কাজ শেখানো হয়।


আরো পড়ুন


ভিডিও বার্তা






কেন রোবটিক্স এবং প্রোগ্রামিং শিখবেন?


কেন রোবটিক্স এবং প্রোগ্রামিং শিখবেন?

চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের এ যুগে আমাদের ছেলেমেয়েদের রোবটিক্স, আইওটি, প্রোগ্রামিং প্রভৃতি বিষয়ে বিশেষ দক্ষতা অর্জন করা
প্রয়োজন। বিশেষ করে স্কুল পর্যায়ে প্রোগ্রামিং, রোবটিক্স এ হাতেখড়ি দেয়া হলে তা শিশুদের চিন্তাশক্তি বিকাশে বিশেষ ভূমিকা
রাখবে- বিশেষ করে তাদের যৌক্তিক মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে। চীন, কোরিয়া, সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়াসহ বিশ্বের বিভিন্ন
দেশে স্কুল পর্যায়ে রোবটিক্স ক্লাব এর মাধ্যমে বাচ্চাদের হাতে-কলমে রোবট বানানোর কাজ শেখানো হয়।


আরো পড়ুন


ভিডিও বার্তা






কেন রোবটিক্স এবং প্রোগ্রামিং শিখবেন?


কেন রোবটিক্স এবং প্রোগ্রামিং শিখবেন?

চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের এ যুগে আমাদের ছেলেমেয়েদের রোবটিক্স, আইওটি, প্রোগ্রামিং প্রভৃতি বিষয়ে বিশেষ দক্ষতা অর্জন করা
প্রয়োজন। বিশেষ করে স্কুল পর্যায়ে প্রোগ্রামিং, রোবটিক্স এ হাতেখড়ি দেয়া হলে তা শিশুদের চিন্তাশক্তি বিকাশে বিশেষ ভূমিকা
রাখবে- বিশেষ করে তাদের যৌক্তিক মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে। চীন, কোরিয়া, সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়াসহ বিশ্বের বিভিন্ন
দেশে স্কুল পর্যায়ে রোবটিক্স ক্লাব এর মাধ্যমে বাচ্চাদের হাতে-কলমে রোবট বানানোর কাজ শেখানো হয়।


আরো পড়ুন


ভিডিও বার্তা






রোবটিক্স ও প্রোগ্রামিং ক্লাবের পটভূমি

চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের ছোঁয়ায় দ্রুত বদলে যাচ্ছে পৃথিবী, সমাজব্যবস্থা, ও অর্থনৈতিক কাঠামো। বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির পাখায় ভর করে ক্রমবিকাশমান এই বিপ্লবের প্রভাব পড়বে বাংলাদেশেও। দুটো প্রভাব বিশেষভাবে প্রণিধানযোগ্য। প্রথমত, শিল্প কারখানায় রোবটিক্স ও অটোমেশন এর ব্যবহার বাড়লে বাংলাদেশ তৈরী পোষাক শিল্পে প্রতিযোগিতায় পিছিয়ে পড়তে পারে, হাজার হাজার প্রযুক্তি না জানা শ্রমিক হারাতে পারে তাদের কর্মসংস্থান। তৈরী পোশাক যেহেতু আমাদের বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের প্রধানতম উৎস সেহেতু চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের এ ধরণের প্রভাব বাংলাদেশের জন্য চিন্তার। দ্বিতীয়, বাংলাদেশের প্রযুক্তি প্রস্তুতি উন্নত দেশের তুলনায় অপেক্ষাকৃত কম হওয়ায় প্রযুক্তিনির্ভর শিল্পবিপ্লবের বাজার অর্থনীতিতে উৎপাদনশীলতায় আমরা পিছিয়ে পড়তে পারি।

বাংলাদেশের মত অপেক্ষাকৃত কম খনিজ সম্পদ সম্পন্ন দেশের জন্য মূল সম্পদ মানব সম্পদ। বাংলাদেশের মানবসম্পদকে চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের উপযোগী করে গড়ে তোলার জন্য চাই প্রযুক্তি শিক্ষার জাগরণ ও দক্ষতার সুষম বণ্টন। সেই লক্ষ্যে কুমিল্লা জেলার মানবসম্পদকে চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের উপযোগী করে প্রস্তুত করতে কুমিল্লা জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ২০২১ সালে গঠন করা হয়েছে কুমিল্লা রোবটিক্স ও প্রোগ্রামিং ক্লাব। কুমিল্লা জেলার আনাচে কানাচে রোবটিক্স ও প্রোগ্রামিং এর ধারণা পৌঁছে দিতে এই ক্লাবের অধীনে শিক্ষার্থীদের জন্য বিভিন্ন ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা ও প্রশিক্ষণ কোর্সের আয়োজন করা হয়েছে। স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীদের শেখানো হচ্ছে কম্পিউটার প্রোগ্রামিং, রোবট বানানোর কৌশল এবং ফ্রিল্যান্সিং দক্ষতা।

নোটিশ


৩ দিনের রিফ্রেশারস কোর্সের সিলেবাস





ব্রাহ্মণপাড়ায় শেষ হলো দুই সপ্তাহব্যাপী প্রোগ্রামিং প্রশিক্ষণ কোর্স





২য় ব্যাচের ক্লাস শুরু হচ্ছে

২০,২১ এবং ২৪ এপ্রিল ২য় ব্যাচের রোবটিক্স ও প্রোগ্রামিং অরিয়েন্টেশন ক্লাস অনুষ্ঠিত হবে জিলা স্কুল, নবাব ফয়জুন্নেসা স্কুল এবং কালেক্টরেট স্কুলে।





জেলা পর্যায়ের রোবটিক্স ও প্রোগ্রামিং এর ১ম ব্যাচের ৩য় ফেইজের ক্লাস আগামী ১১, ১২, ১৬ এপ্রিল সকাল ৯টায় কুমিল্লা জিলা স্কুলের ল্যাবে অনুষ্ঠিত হবে।




আজ জেলায় অনুষ্ঠিত ২য় ফেইজের রোবটিক্স ও প্রোগ্রামিং প্রশিক্ষণের বাছাই পরীক্ষার ফলাফল।

আগামীকাল জিলা স্কুলের কর্মশালা রুমে অরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠিত হবে। অরিয়েন্টেশনে প্রশিক্ষক হিসেবে থাকবে ন্যাশনাল অলিম্পিয়াড টিমের প্রশিক্ষক। ১৬৬ জনের জন্য শুভকামনা।


ফলাফল





সংখ্যায় কুমিল্লা রোবটিক্স ও প্রোগ্রামিং ক্লাব

17
উপজেলা
43
ওরিয়েন্টেশন প্রোগ্রাম
34
প্রশিক্ষণ কোর্স
3456
অংশগ্রহণকারী
110
ওরিয়েন্টেশন বক্তা

কুমিল্লা মেতেছে রোবট উৎসবে

চতুর্থ শিল্পবিপ্লব: প্রেক্ষিত কুমিল্লা

রোবট বানাচ্ছে শিক্ষার্থীরা

আমাদের লক্ষ্য এবং উদ্দেশ্য

চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় টেকসই ও দক্ষ মানবসম্পদ গড়ে তোলা

কুমিল্লা জেলা শিক্ষার্থীদের বিজ্ঞান বিষয়ক ও মননশীল বুদ্ধিবৃত্তিক চর্চায় আগ্রহী করে তোলা।

অন্তর্ভুক্তিমূলক উদ্ভাবনী বিকাশে প্রযুক্তিগত জ্ঞানসমৃদ্ধ ও শক্তিশালী প্লাটফর্ম গড়ে তোলা

স্কুল পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের মধ্যে প্রোগ্রামিং, রোবটিক্স ও আইওটি প্রজেক্ট নির্মাণের মানসিকতা তৈরী করা

উদ্ভাবনী জাতি হিসেবে আর্ন্তজাতিক ফোরামে বাংলাদেশের ব্র্যান্ডিং করার সক্ষমতা গড়ে তোলা।

চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় টেকসই ও দক্ষ মানবসম্পদ গড়ে তোলা

তথ্য প্রযুক্তিনির্ভর ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের মহাযাত্রায় গর্বিত অংশীদার হওয়া।

চতুর্থ শিল্প বিপ্লব ও বাংলাদেশ​

চতুর্থ শিল্প বিপ্লবকে “Industry 4.0” হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়েছে। World Economic Forum (WEF)-এর প্রতিষ্ঠাতা ও নির্বাহী প্রধান ক্লাউস শোয়াব তার ‘The Fourth Industrial Revolution 2103 TONA এ বলেছেন,‘আমরা চাই বা না-চাই বিশ্ব ক্রমশ পরিবর্তনের দিকে এগিয়ে চলছে। শিক্ষা, স্বাস্থ্য, চিকিৎসা, ব্যবসা-বাণিজ্য, যোগাযোগ, নিরাপত্তা, গবেষণা সবক্ষেত্রেই চতুর্থ বিপ্লবের সুদৃঢ় প্রসারী প্রভাব থাকবে।’

আরো পড়ুন

কুমিল্লা জেলা প্রশাসন রোবটিক্স ও প্রোগ্রামিং ক্লাব

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অতুলনীয় দূরদর্শিতায় ডিজিটাল বাংলাদেশ সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে যাচ্ছে। ভবিষ্যত উন্নত প্রযুক্তিতে সমৃদ্ধ পৃথিবীর নেতৃত্বদানে সক্ষমতা অর্জনের লক্ষ্যে ইতোমধ্যে আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স, ব্লকচেইন, আইওটি, ন্যানোটেকনোলজি, বায়োটেকনোলজি, রোবটিক্স, মাইক্রোপ্রসেসর ডিজাইনের মতো ক্ষেত্রগুলোতে জোর দিয়ে সরকার বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করেছে।


আরো পড়ুন





মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য

আমি আমাদের যুবকদের জন্য গর্বিত বোধ করি.

চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের পথে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। এখানে নেতৃত্ব দেওয়ার মতো সক্ষমতা আমাদের আছে। আর তাই আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স, ব্লক চেইন, আইওটি, ন্যানো টেকনোলজি, বায়োটেকনোলজি, রোবটিক্স, মাইক্রোপ্রসেসর ডিজাইনের মত ক্ষেত্রগুলোতে জোর দিচ্ছি আমরা। এক সাথে উদ্ভাবনের পথে একযোগে কাজ করতে হবে, তাহলেই আমরা এগিয়ে যাব। দেশে তথ্যপ্রযুক্তিখাতে বিনিয়োগ বাড়ানর জন্য আমরা বিশ্বমানের ৩৯টি হাই টেক পার্ক নির্মাণ করেছি। ২০২৫ সালে মধ্যে ৫ বিলিয়ন ডলারের আইটি পণ্য রপ্তানির লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে কাজ করছি আমরা।
সজীব ওয়াজেদ জয়
প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি বিষয়ক মাননীয় উপদেষ্টা

আমি আমাদের যুবকদের জন্য গর্বিত বোধ করি.

চতুর্থ শিল্পবিপ্লবে নেতৃত্ব দেওয়াটাই আজ আমাদের সামনে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ। এজন্য সরকার, শিল্প ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে দূরত্ব কমাতে হবে। অংশীদারিত্ব ও সহযোগিতার সম্পর্ক ছাড়া চতুর্থ শিল্পবিপ্লবে নেতৃত্ব দেওয়া সম্ভব হবে না। তিনি বলেন, এসব ছাড়াও শ্রম থেকে প্রযুক্তিনির্ভর অর্থনীতিতে রূপান্তরের অংশ হিসেবে দেশের ডেমোগ্রাফিক ডিভিডেন্ট কাজে লাগাতে চাই সরকার। এজন্য মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকের পর আগামী বছর থেকেই প্রাথমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদেরকে কম্পিউটারের ভাষা শেখানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। জাতীয় পাঠ্যক্রমে সংযুক্ত করা হচ্ছে কোডিং, প্রোগ্রামিং এবং প্রবলেম সলভিং দক্ষতা।
জুনাইদ আহমেদ পলক
এমপি, মাননীয় প্রতিমন্ত্রী, আইসিটি মন্ত্রনালয়

আমি আমাদের যুবকদের জন্য গর্বিত বোধ করি.

প্রিয় শিক্ষার্থীরা, বিশ্বব্যাপী তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির ব্যবহার এবং এর প্রয়োগ জ্যামিতিক হারে বেড়ে চলেছে। উন্নত বাংলাদেশ বিনির্মাণে ২০৪১ সালের মধ্যে তথ্যপ্রযুক্তিনির্ভর দক্ষ মানবসম্পদ সৃষ্টির গুরুত্ব অনস্বীকার্য। এ উদ্দেশ্যে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের মাধ্যমে বিভিন্ন ধাপে প্রোগ্রামিংয়ের উপর ধারণা প্রদান করার উদ্যোগে প্রশিক্ষণ কর্মসূচি চলমান রয়েছে। এ প্রশিক্ষণের মাধ্যমে তোমরা বেসিক প্রোগ্রামিং, অরড্যুইনো প্রোগ্রামিং, ফান উইথ প্রোগ্রামিং, ইলেক্ট্রনিক্সসহ নানামুখি শিক্ষা অর্জন করতে পারবে। তাছাড়া প্রশিক্ষণলব্ধ জ্ঞান ব্যবহারিক ক্ষেত্রে প্রয়োগ করার সুযোগ প্রদানের লক্ষ্যে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে স্থাপন করা হচ্ছে কালেক্টরেট ফ্যাবল্যাব। আমাদের খুদে শিক্ষার্থীদের জন্য যে প্ল্যাটফর্ম আমরা তৈরি করছি তা একদিন ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার ভিত্তি আরও সুদৃঢ় করবে।
মোহাম্মদ কামরুল হাসান
জেলাপ্রশাসক ও বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, কুমিল্লা

আসন্ন ইভেন্টঃ


১৬
মে শুরু


আগামী ১৬-২৫ মে কুমিল্লার ১৬টি উপজেলায় অনুষ্ঠিত হবে ৩ দিন ব্যাপী রোবটিক্স ও প্রোগ্রামিং বিষয়ক রিফ্রেশার্স প্রশিক্ষণ কোর্স

ভেন্যুঃ কেন্দ্রীয় পুল
সময়কালঃ ১৬ মে থেকে ২৫ মে
প্রশিক্ষণার্থীর সংখ্যাঃ ১০

০৩
এপ্রিল শুরু


ব্রাহ্মণপাড়ায় ৩ এপ্রিল থেকে তিন সপ্তাহ মেয়াদী গ্রাফিক ডিজাইনের উপর ফ্রিল্যান্সিং প্রশিক্ষণ শুরু

ভেন্যুঃ সাহেবাবাদ ডিগ্রি কলেজ
সময়কালঃ ৩ এপ্রিল থেকে ২১ এপ্রিল পর্যন্ত
প্রশিক্ষণার্থীর সংখ্যাঃ ২০ জন

২৮
মার্চ শুরু


২৮ মার্চ শুরু কুমিল্লা কালেক্টরেট স্কুল এন্ড কলেজে প্রোগ্রামিং ইন স্কুল প্রতিষ্ঠা করা হবে।


২৯
মার্চ শুরু


ব্রাহ্মণপাড়ায় ২৯ মার্চ থেকে শুরু হবে দুই সপ্তাহ মেয়াদী রোবটিক্স প্রশিক্ষণ কোর্স

ভেন্যুঃ মোশাররফ হোসেন খান চৌধুরী কলেজ
সময়কালঃ ২৯ মার্চ থেকে ৯ এপ্রিল
প্রশিক্ষণার্থীর সংখ্যাঃ ৫০

২৮
মার্চ শুরু


রোবটিক্স ও প্রোগ্রামিং প্রশিক্ষণের ২য় ধাপে ১০০ জনকে মনোনয়নের নিমিত্ত আগামী ৯ এপ্রিল ২০২২ তারিখে কুমিল্লা জিলা স্কুলে প্রাথমিক বাছাই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।